ইসলামের দৃষ্টিতে দিরিলিস | ডা: জাকির নায়েক

দিরিলিস আরতুগ্রুল দেখা কি হারাম? এ প্রসঙ্গে ডা: জাকির নায়েক কি বলে দেখুন:

জাকির নায়েক কে একজনের প্রশ্নঃ একটা ড্রামা আছে যার নাম আরতুগ্রুল। যেটা ইউটিউব এর সকল রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে। মুসলিমরা এটা নিয়ে এতো বেশি প্রসংশা করছে যে, যদি কেউ এই সিরিজ দেখতে মানা করে তাহলে তারা ধরে নেয় যে সে এন্টি ইসলামিক। এই সিরিজকে সাপোর্ট করেন এরদোয়ান, আর ইমরান খানও এই সিরিজের খুব প্রশংসা করেছেন। দেওবন্দ থেকে এটার বিরুদ্ধে ফতোয়া একটি ফতোয়া দিয়েছে। এই সিরিজে অনেক আলিঙ্গন, চুম্বন, অসঙ্গত স্পর্শ এবং একটি প্রেম কাহিনি ও গান আছে। আর এই কাহিনি পরিপূর্ণ সত্য না। আপনার এই ব্যাপারে নহিসা বা উপদেশ কি? রোজার মাসে আমাদের তরুন প্রজন্ম ঘরে বসে এগুলো দেখে তাদের সময় নষ্ট করছে?



জাকির নায়েকঃ একই ধরণের এক প্রশ্ন করেছেন, তাসাদুখ কাশ্মির থেকে যে, ইসলামে কি আরতুগ্রুল সিরিয়াল দেখা যায়? একই ধরণের আরেকটি প্রশ্ন করেছেন ফয়সাল খুরশিদ পাকিস্তান থেকে; ইসলাম ড্রামা এবং মুভি দেখার  ব্যাপারে কি বলে? এই প্রশ্নটি আমি আরতুগ্রুল সিরিজের উপর ভিত্তি করে করেছি। যেখানে মুসলিমদের বিজয় দেখানো হয় ক্রুসেড এর সময় ক্রুসেড দের বিরুদ্ধে।

জাকির নায়েকঃ আমি এই টপিকের উপর অর্থাৎ এটা নিয়ে ১০০ অথবা হাজারের উপরে প্রশ্ন পেয়েছি। এখন আমি এই ব্যাপারে  কিছু কথা বলব। কিন্তু আমার উত্তর শুধু এই সিরিজকে নিয়ে না এ জাতীয় সামগ্রিক সব কিছুকে নিয়েই সমালোচনা

প্রথমত আমি নিজে মিডিয়াতে কাজ করেছি, আমি নিজেই মিডিয়ার সাইড দেখেছি। প্রায় সকল অর্থাৎ এ জাতীয় প্রায় ৯৯.৯% সিরিজই হালাল মানদণ্ডতে পড়বে না অর্থাৎ হালাল হবে না। হালাল এর শর্ত পূর্ণ করবে না। কিছু কম হারাম কিছু বেশি হারাম। মুভি এর ক্ষেত্রেও সব মুভিতে কম বেশি হারাম। কিছু কম হারাম আর কিছু বেশি হারাম। কিছু কবিরা গুনাহ আর কিছু সগিরা গুনাহ। আর এটা যেহেতু আরতুগ্রুল নিয়ে প্রশ্ন বা চিন্তা। আমি যেহেতু আরতুগ্রুল নিয়ে তেমন গবেষণা করিনি। সেই ক্ষেত্রে আমি সব প্রশ্নের উত্তর দিতে পারব না। কিন্তু কিছু কথা বলবো।

হ্যা আমি আরতুগ্রুল নিয়ে অনেক আর্টিকেল পড়েছি৷ অনেক খবর পড়েছি আর যতদূর জানি এটা শুধু ইউটিউব এ না; এটা পুরো বিশ্বের সেরা একটি সিরিজ। এটা হলিউডেও নাকি রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। এর ফলেই আমি এই সিরিজ সম্পর্কে জানতে পারলাম। এটি তুরুষ্কে তৈরি হয়েছে এবং এর ১৫৭ টি পর্ব রয়েছে আর প্রতি পর্বগুলো ২ ঘন্টা ১৫ মিনিট করে। এবং অনেক অনেক ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে। নেটফ্লিক্সের অনেক ভাষায় অনুবাদ করা হয়েছে।

কিন্তু হ্যা আমি আর্টিকেল থেকে পড়ে যা বুঝলাম এটা সম্পূর্ণভাবে জায়েজ না কারণ এখানে অনেক মহিলা অভিনেত্রী আছে যারা হিজাব পড়েনি। এটা ঐ বলিউড আর হলিউড এর মুভির মত এত বেশি হারাম না, খুব বেশি অসঙ্গতি দৃশ্য নেই। শুধু আছে হাত মিলানো আর আলিঙ্গন; কিন্তু হ্যা এটা দেখা উচিৎ না কারণ এখানে হিজাব ছাড়া মহিলা আছে। এখানে গান আছে আবার কিছু দৃশ্য আছে যেগুলো ইসলামিক আকিদার বিরুদ্ধে যায়। সুতরাং এই সিরিজ পুরোপুরি ইসলামিক না। সুতরাং আপনাকে কেউ এই ব্যাপারে কেউ ফতোয়া দিতে পারবে না যে এটা দেখা জায়েজ। কিন্তু পুরো পৃথিবীতে যেভাবে সমালোচনা হচ্ছে আর যারা কোন মুভি বা নাটক দেখে না আমি তাদের বলব দয়াকরে এটা দেখবেন না। এটা আপনার জন্য হারাম।

দয়াকরে আমি বলব, মুভি নাটক হারাম বিধায় যারা মুভি নাটক দেখেনা তাদেরকে বলবো যে তাদের এটা দেখার দরকার নাই। কারণ এই মুভি সিরিজ ১০০% হালাল না। তারচেয়ে না দেখাই ভালো।

আর যারা মুভি দেখায় আশক্ত বা মুভি দেখেন, এমন মিলিয়ন মিলিয়ন মুসলিম আছে যারা মুভি দেখায় অশক্ত যা দেখা হারাম। যেমনঃ বলিউড হলিউড মুভি। পর্নোগ্রাফি না কিন্তু সাধারণ মুভি যেগুলো হারাম। যেখানে মেয়েরা মিনি স্কার্ট পড়ে আবার হিন্দি সিরিয়াল যেগুলো হারাম সেগুলো দেখে। তাদেরকে বলছি তারা তো এগুলো প্রতি আসক্তই। যদিও ভালো উপায় হলো মুভি আর নাটক দেখা ছেড়ে দেয়া। আর যদি না ছাড়তে পারে তাদের জন্য ভালো উপায় হলো আরতুগ্রুল অথবা এ জাতীয় মুসলিম সংশ্লিষ্ট কিছু দেখা কারণ এগুলো কম পাপ। আমার দেখা মতো ভালো মুভি হলো Tha massage মুভি। যেটা একটি আরবি মুভি এবং ইসলামিক। এখন আমাকে প্রশ্ন করতে পারেন যে, এটা কি ১০০ ভাগ হালাল? নাহ এমনকি এই মুভিটাও ১০০ ভাগ হালাল না।

কারণ এখানে কিছু গান ছিল আর সঠিকভাবে পর্দা করেনি সবাই। কিন্তু এই ভুমিটা যেভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে এতো সুন্দর কাহিনি যে কাউকে এই মুভি ইসলামের প্রতি ধাবিত করতে পারবে। যদি কোন মুভি দেখার ইচ্ছা হয় তাহলে The massage মুভি দেখবেন।

আবার ওমর সিরিজ যেটায় ৩০ পর্ব ছিল। যেটা এমবিসি থেকে বানানো এবং কাতার ফাউন্ডেশন থেকে ফান্ড দেয়া দেয়া হয়েছিল। এমনকি এই সিরিজটাও ইসলামিক হলেও ১০০% ইসলামিক ছিল না। সেটায়ও মিউজিক ছিল আর কিছু নারী ছিল। তাও সেই সিরিজে এতো সুন্দর করে ইসলামিক বিষগুলো তুলে ধরা হয়েছে এতো সুন্দর করে হাদিস আর কোরআনের আয়াত তুলে ধরা হয়েছে। সামগ্রিক শিক্ষাটা চমৎকার ছিল। তাও এই সিরিজগুলা দেখলে মানুষ ইসলামের পথে ধাবিত হবে। ইসলাম থেকে দূরে সরে যাবে না। হ্যা অল্প হারাম আছে। তবে আমার মথে সেরা হলো The massage আর যদি সিরিজ দেখে অভ্যাস থাকে তাহলে সেরা সিরিজ হলো ওমর সিরিজ। তবে আরতুগ্রুল সিরিজ Tha Massage আর ওমর সিরিজের মতো এতো উর্ধ্বে না। তবে একটা কথা বলি, যদি বলেন যে একটা একটা মেয়ে মিনি স্কার্ট পড়া। এখন বলা হলো, পরিবর্তন করে সেলোয়ার-কামিজ পড়ে? সেক্ষেত্রে সেলোয়ার-কামিজে যদি চুল খোলা থাকে? যেটা হারাম। কিন্তু সর্ট স্কার্ট থেকে অনেকগুণ বেশি ভালো না?

এখন একটা মেয়ে পুরো হাতা পড়া পুরো ঢাকা কিন্তু চুল খোলা সে অবশ্যই ছোট স্কার্ট পড়া মেয়ে থেকে হাজার গুণে ভালো। হ্যা সেলোয়ার-কামিজে চুল খোলা সেহেতু হারাম কিন্তু মিনি স্কার্ট পড়া তার চেয়ে কতো বাজে; পুরো শরির দেখা যায়। এখন আপনার যদি মনেহয় যে হিজাব না পড়লে ভালো না তাহলে এটা দেখবেন না। কিন্তু মিনি স্কার্ট পড়ে থাকার চেয়ে সেলোয়ার-কামিজ তো একটু হলেও উত্তম। আর যেহেতু আরতুগ্রুল সম্পূর্ণ ভাবে ইসলামিক না কিন্তু তাও ইসলামিক বিষয় আছে এবং মানুষকে কিছু হলেও ইসলামের দিকে আকর্ষণ করে।

এখন আমি সম্পূর্ণ দেখিনি কিন্তু যা জানতে পারলাম আর্টিকেল পড়ে তা থেকে বলতে পারি যে হ্যা এটা দেখা হারাম। কিন্তু আপনি যদি নাটক দেখেন মুভি দেখেন তাহলে বলবো যে প্রথমত দেখা ছেড়ে দেন। আর তা যদি না পারেন তাহলে বলবো যে হলিউড বলিউড এর নাটক সিরিজ থেকে আরতুগ্রুল উত্তম। আপনি এটা দেখেন।

তবে হ্যা আমি বলবো যে এগুলো দেখবেন না। কোরআন পড়েন নামাজ পড়েন এটাই উত্তর। এমনকি আমিও মুভি শিল্পে কাজ করতে পারি না কারণ তা আমার শরিয়তের আইনের বিরুদ্ধে যায়। ওমর সিরিজ আর The massage এর মতো মুভি দেখতে পারি না কারণ তা আমার শরিয়ত আইনের বিরুদ্ধে যায়। তবে আশাকরি একদিন এমন এক মুভি বানাতে সক্ষম হবো যেখানে কোন হারাম থাকবে না এবং শরীয়তের আইন পরিপূর্ণ থাকবে। যেমন গান থাকবে না কিন্তু  ইসলামিক নাশিদ যেটা জায়েজ তা থাকতে পারে। ঠিক তেমনভাবে আমরা পিচ টিভি চালাচ্ছি। যেখানে কোন গান নেই, সম্পূর্ণ হালাল। আমরা যা দেই তাতে মানুষের আলাপ আছে, মানুষের আওয়াজ আছে ডাফ আছে যেটা ইসলামে জায়েজ। যদিও সব স্কলাররা এটার সমর্থন করেন না কিন্তু হ্যা আমরা ডাফ দেই আর এটার উপর ভিত্তি করে ইনশাআল্লাহ Tha massage এর মত উচ্চ গুনসম্পন্ন ইসলামিক মুভি যেটা কোরআন অথবা হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে নিয়ে এমন মুভি তৈরি করার ইচ্ছা আছে। যদি আল্লাহ তৌফিক দান করেন তাহলে বানাবো ইনশাআল্লাহ।


ভিডিও

Post a Comment

0 Comments